মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

বর্তমান পরিষদ

 

(১)

ইউনিয়ন পরিষদ কাঠামোঃ

(২)

ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্ব ও কার্যাবলী

স্থানীয় প্রয়োজনের প্রতি দৃষ্টি রেখে স্থানীয় সম্পদ দ্বারা বাস্তব কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ইউনিয়ন পরিষদের উদ্ভব হয়। একটি ইউনিয়ন পরিষদের নিজস্ব এলাকার অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক উন্নতির জন্য কার্যক্রম গ্রহণ করা ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্ব ও কার্যাবলীর অন্তর্ভূক্ত। (১৯৮৩ সানের স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) অধ্যাদেশ, এর ৩০ ধারা অনুযায়ী ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্ব ও কার্যাবলী মূলত দু’প্রকার - যথা (১) বাধ্যতামূলক কার্যাবলী এবং (২) ঐচ্ছিক কার্যাবলী।

 

* বাধ্যতামূলক কার্যাবলীঃ

(1)              সাধারণভাবে ইউনিয়ন পরিষদ সমূহের জন্য বা কোন নির্দিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে সরকার কর্তৃক ঘোষিত দায়িত্ব;

(2)             সমকালে প্রচলিত অন্য কোন আইনের অধীনে ইউনিয়ন পরিষদ সমূহের উপর ন্যস্ত অন্যান্য দায়িত্ব;

(3)             আইন শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনকে সহযোগিতা করা;

(4)              অপরাধ মূলক কার্যকলাপ, বিশৃংখলা সৃষ্টি ও চোরাচালান রোধ করার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ;

(5)             কৃষি, বন, মৎস্য, গবাদি পশু, শিক্ষা, স্বাস্থ্য কুটির শিল্প, যোগাযোগ, সেচ ও বন্যা নিয়ন্ত্রণের উদ্দেশ্যে উন্নয়ন কর্মসূচী বাস্তবায়ন, জনগণের অর্থনৈতিক ও সামাজিক অবস্থার উন্নয়নের জন্য যা করা প্রয়োজন;

(6)             পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচী বাস্তবায়ন;

(7)             বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষা কর্মসূচী বাস্তবায়ন;

(8)             স্থানীয় সম্পদের উন্নয়ন ও সম্পদের সদব্যবহার;

(9)             সরকারী সম্পত্তি যেমন- সড়ক, সেতু, খাল, বাঁধ, টেলিফোন ও বিদ্যুৎ লাইন প্রভৃতি রক্ষণাবেক্ষণ;

(10)           ইউনিয়ন পর্যায়ের সকল প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন কর্ম-তৎপরতা পর্যালোচনা করে সে সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট থানা পরিষদের নিকট সুপারিশ করা;

(11)           সেনিটারী পায়খানা স্থাপনের জন্য জনসাধারণের মধ্যে আগ্রহ ও সচেতনতা সৃষ্টি করা;

(12)           ইউনিয়নাধীন জন্ম, মৃত্যু, অন্ধ, ভিক্ষুক ও দুঃস্থ ব্যাক্তিদের তথ্য সংগ্রহ ও রেকর্ড করা;ঃ

(13)          সকল প্রকার শুমারী পরিচালনার দায়িত্ব পালন করা।

* ঐচ্ছিক কার্যাবলী সমূহঃ

১৯৮৩ সনের স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) অধ্যাদেশের ১ম তফশিলে বর্ণিত ৩৮টি ঐচ্ছিক কার্যাবলী সমূহ ইউনিয়ন পরিষদের তহবিলের সীমার মধ্যে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সম্পাদন করতে হবে, কার্যাবলী সমূহঃ-

(১) জনপথ ও রাজপথের ব্যবস্থা ও রক্ষণাবেক্ষণ;

(২) সরকারী স্থান, উন্মুক্ত জায়গা, উদ্যান ও খেলার মাঠের ব্যবস্থা ও রক্ষণাবেক্ষণ;

(৩) জনপথ, রাজপথ ও সরকারী স্থানে আলো জ্বালানো;

(৪) সাধারণভাবে বৃক্ষ রোপণ ও সংরক্ষণ এবং বিশেষভাবে জনপথ, রাজপথ ও সরকারী স্থানে বৃক্ষ রোপন ও সংরক্ষণ।

(৫) কবরস্থান, শ্নশান, জনসাধারণের সভার স্থান ও জনসাধারণের অন্যান্য সম্পত্তির রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচালনা।

(৬) পর্যটকদের থাকার ব্যবস্থা ও রক্ষণাবেক্ষণ;

(৭) জনপথ, রাজপথ ও সরকারী স্থান নিয়ন্ত্রণ ও অনধিকার প্রবেশ রোধ করণ;

(৮) জনপথ, রাজপথথ ও সরকারী স্থানে উৎপাত ও তার কারণ বন্ধ করণ;

(৯) ইউনিয়নের পরিচ্ছন্নতার জন্য নদী, বন ইত্যাদির তত্ত্বাবধান, স্বাস্থ্যকর ব্যবস্থার উৎকর্ষ সাধন এবং অন্যান্য ব্যাবস্থা গ্রহণ;

(১০) গোবর ও রাস্তার আবর্জনা সংগ্রহ, অপসারন ও ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করণ;

(১১) অপরাধ মূলক ও বিপদজনক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করণ;

(১২) মৃত পশুর দেহ অপসারণ ও নিয়ন্ত্রণ করণ;

(১৩) পশু জবাই নিয়ন্ত্রণ করণ;

(১৪) ইউনিয়নের ভবন নির্মাণ ও পুনঃনির্মাণ নিয়ন্ত্রণ করণ;

(১৫) বিপদজনক ভবন ও সৌধ নিয়ন্ত্রণ করণ;

(১৬) কুয়া, পানি তোলার কল, জলাধার, পুকুর এবং পানি সরবরাহের অন্যান্য স্থানের পানি ব্যবস্থার নিষিদ্ধকরণ;

(১৭) খাবার পানির উৎস দূষিতকরণ রোধের ব্যবস্থা গ্রহণ;

(১৮) জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর সন্দেহযুক্ত কুপ, পুকুর বা পানি সরবরাহের অন্যান্য স্থানের পানি ব্যবহার নিষিদ্ধকরণ;

(১৯) খাবার পানির জন্য সংরক্ষিত কুপ, পুকুর বা পানি সরবরাহের অন্যান্য স্থানে বা নিকটবর্তী স্থানে গোসল, কাপড় কাচা বা পশুর গোসল নিষিদ্ধকরণ বা নিয়ন্ত্রণকরণ;

(২০) পুকুর বা পানি সরবরাহের অন্যা্য স্থানে বা নিকটবর্তী স্থানে শন, পাট বা অন্যান্য গাছ ভিজানো নিষিদ্ধকরণ বা নিয়ন্ত্রণ করণ;

(২১) আবাসিক এলাকায় চামড়া রং করা বা পাকা করা নিষিদ্ধকরণ বা নিয়ন্ত্রণকরণ;

(২২) আবাসিক এলাকার মাটি খনন করে পাথর বা অন্যান্য বস্ত্ত উত্তোলন নিষিদ্ধকরণ বা নিয়ন্ত্রণকরণ

(২৩) আবাসিক এলাকায় ইট, মাটির পাত্র বা অন্যান্য ভাটি নির্মাণ নিষিদ্ধকরণ বা নিয়ন্ত্রণ করণ

(২৪) গৃহ পালিত পশু বা অন্যা্য পশু বিক্রয়ে ঐচ্ছিক তালিকা প্রণয়ন;

(২৫) মেলা ও প্রদর্শনীর আয়োজন;

(২৬) জনসাধারণের উৎসব পালন;

(২৭) অগ্নি, বন্যা, শিলাবৃষ্টিসহ ঝড়, ভূমিকম্প বা অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগের মোকাবেলায় তৎপরতার ব্যবস্থাকরণ;

(২৮) বিধবা, এতিম, গরীব ও দুস্থ ব্যক্তিদের সাহায্যকরণ;

(২৯) খেলা-ধুলার উন্নতি সাধন;

(৩০) শিক্ষা ও সামাজিক উন্নয়ন, সমবায় আন্দোলন ও গ্রামীন শিল্পের উন্নয়ন সাধন ও উৎসাহ দান;

(৩১) বাড়তি খাদ্য উৎপাদনের ব্যবস্থা গ্রহণ;

(৩২) পরিবেশ ব্যবস্থাপনার কাজ;

(৩৩) গবাদি পশুর খোয়াড় নিয়ন্ত্রণ ও রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থাকরণ;

(৩৪) প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্রের ব্যবস্থাকরণ;

(৩৫) গ্রন্থাগার ও পাঠাগারের ব্যবস্থাকরণ;

(৩৬) ইউনিয়ন পরিষদের মত সদৃশ্য কাজে নিয়োজিত অন্যান্য সংস্থার সাথে সহযোগিতা;

(৩৭) জেলা প্রশাসকের নির্দেশক্রমে শিক্ষার উন্নয়নে সাহায্যকরণ;

(৩৮) ইউনিয়নের বাসিন্দা বা পরিদর্শনকারী উন্নয়ন, স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা আরাম আয়েস বা সুযোগ-সুবিধার জন্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণ।

অধ্যাদেশের আলোকে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যাবলী সমূহকে প্রধানত চার ভাগে বিভক্ত করা যায়। যথা- (১) পৌর কার্যাবলী (২) রাজস্ব ও প্রশাসন (৩) নিরাপত্তা ও (৪) উন্নয়ন। এ সকল কার্যাবলীর বিবরণ নিম্নরূপ

১। পৌর কার্যাবলীঃইউনিয়ন পরিষদের পৌর কার্যাবলী সমূহ হলো

(ক) যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন;

(খ) স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা;

(গ) পানীয় জল সরবরাহ;

(ঘ) সংস্কৃতি ও সমাজ কল্যাণ।

২। রাজস্ব ও প্রশাসনঃএ ক্ষেত্রে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব হলো

(ক) ইউনিয়নে কর্মরত সরকারী রাজস্ব আদায়ে নিয়োজিত সকল কর্মচারীদের রাজস্ব ও ভূমি উন্নয়ন কর আদায় এবং সাধারণ প্রশাসনিক কাজে সহযোগিতা করা;

(খ) জেলা প্রশাসক যেভাবে চাইবেন সেভাবে রেকর্ড পত্র প্রণয়ন, জরিপ ও শস্য তদারকী;

(গ) কোন অপরাধ সংঘটিত হলে এবং ইউনিয়নে কোন দুষ্কৃতিকারীর ইপস্থিতি দেখা পেলে তা পুলিশকে জানানো এবং অপরাধ তদন্ত ও অপরাধীদের গ্রেফতারের কাজে পুলিশকে সাহায্য করা;

(ঘ) কোন সরকারী রাস্তায়, সরকারী জায়গায়, সরকারী ভবনের বা সম্পত্তির ক্ষতি বা বেদখলের ঘটনা ঘটলে তা দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষের নিকট রিপোর্ট করা;

(ঙ) সরকার বা অন্যান্য উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের জন্য ইউনিয়নের প্রয়োজনীয় প্রচার কার্য সম্পাদন করা এবং

(চ) সরকারী কর্মকর্তাগণকে তাদের দায়িত্ব পালনে সহযোগিতা করা এবং সরকারের প্রয়োজনে যে সকল তথ্য চাবেন তা প্রদান করা।

ইউনিয়ন পরিষদের যে সকল দায়িত্বের কথাই বলা হোন না কেন চেয়ারম্যান কোন অফিসারকে তার সরকারী দায়িত্ব ফালনে হস্তক্ষেপ করতে পারবেন না।

৩। নিরাপত্তাঃইউনিয়নের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ইউনিয়ন পরিষদের অন্যতম প্রধান দায়িত্ব। এ দায়িত্ব পালনের জন্য প্রতিটি ইউনিয়নে একজন দফাদার ও ৯ জন মহল্লাদার নিয়োগ করা যাবে। দফাদার ও মহল্লাদারগণ গ্রাম পুলিশ নামে অভিহিত হন।

৪। উন্নয়নঃস্থানীয় উন্নয়নের কেন্দ্র বিন্দু হলো ইউনিয়ন পরিষদ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রমে ইউনিয়ন পরিষদকে ব্যপক ক্ষমতা প্রদান করা হয়েছে। থানা উন্নয়ন সহায়তা তহবিলের আওতায় গৃহীত উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তাবায়নের ক্ষেত্রেও চেয়ারম্যানগণ সম্পৃক্ত থাকেন।

ছবি